ঢাকারবিবার , ৯ মে ২০২১
  1. আনন্দধারা
  2. আন্তর্জাতিক
  3. ইসলাম ও জীবন
  4. কৃষি ও অর্থনীতি
  5. ক্যাম্পাস
  6. খুলনা
  7. খেলাধুলা
  8. গল্প ও কবিতা
  9. গুরুত্বপূর্ণ ওয়েব লিংক
  10. চট্রগ্রাম
  11. চাকুরী বার্তা
  12. জনমত
  13. জাতীয়
  14. ঢাকা
  15. পরিবেশ ও বিজ্ঞান

অনুপ্রেরণার বাতিঘর ছিলেন বঙ্গবন্ধু

অনুপ্রেরণার বাতিঘর ছিলেন বঙ্গবন্ধু

গোপালগঞ্জের অজপাড়া গাঁ টুঙ্গিপাড়ায় জন্ম নেয়া শিশুটিই হচ্ছেন আজকের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ১৯২০ সালের আজকের এই দিনে (১৭ মার্চ) এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন বঙ্গবন্ধু।পিতা শেখ লুৎফর রহমান ও মাতা সায়রা খাতুনের তৃতীয় সন্তান ছিলেন তিনি। ছোট বেলায় আচরণে খোকাদের মতোই সহজ-সরল,নিষ্পাপ মনের কারনে তাঁকে আদর করে খোকা বলে ডাকতেন পিতা-মাতা।মধুমতি নদীতে সাঁতার কেটে হওয়া সেই শিশুটি কালক্রমে খোকা থেকে হয়ে ওঠেন বাংলার মহানায়ক। হয়ে উঠেন বঙ্গবন্ধু থেকে বিশ্ববন্ধু।

গোপালগঞ্জ মিশন স্কুলের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র থাকা অবস্থায় মুজিব তৎকালীন ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনে যোগদানের কারণে প্রথমবারের মতো কারাবরণ করেন। কলকাতায় ইসলামিয়া কলেজে পড়ার সময় তিনি হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী ও শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হকসহ তৎকালীন প্রথম সারির রাজনৈতিক নেতাদের সান্নিধ্যে আসেন। রাজনৈতিক জীবনের শুরু থেকেই সংগ্রাম-আন্দোলন চালিয়ে গেছেন অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী এই নেতা।

একাত্তরের মার্চে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বেই শুরু হয় অসহযোগ আন্দোলন। পরবর্তীতে ১৯৭১ সালের’৭ই মার্চ ঢাকার রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমানে সোহওয়ার্দী উদ্যানে)দেয়া তাঁর দেয়া একটি ভাষণ লাখো মানুষের মনের মধ্যে স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনার বীজ বপন করে দেয়।সেদিন বাঙালি জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করেছিল তাঁর ঐ ভাষণ। যার ফলে আমরা পেয়েছি একটি স্বাধীন সার্বোভৌম বাংলাদেশ,বিশ্ব মানচিত্রে পেয়েছি লাল-সবুজের একটি পতাকা।২৫ মার্চ পাকিস্তানি সামরিক বাহিনী নিরস্ত্র বাঙালির ওপর হামলা চালায়। আর ২৬ মার্চের প্রথম প্রহরে বঙ্গবন্ধুকে গ্রেপ্তার করে পাকিস্তানে নিয়ে যাওয়া হয়। রক্তক্ষয়ী ৯ মাসের সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে জন্ম হয় বাংলাদেশের।

বঙ্গবন্ধু দেশকে ভালোবাসতেন।ভালোবাসতেন দেশের মানুষকে। এছাড়া দেশ ও জনগণের বিভিন্ন কাজে তিনি যখন গ্রামেগঞ্জে যেতেন, তখন চলার পথে শিশুদের দেখলে গাড়ি থামিয়ে তাদের সঙ্গে গল্প করতেন। খোঁজ-খবর নিতেন। দুস্থ ও গরিব শিশুদের দেখলে কাছে টানতেন। কখনো কখনো নিজের গাড়িতে উঠিয়ে অফিসে বা নিজের বাড়িতে নিয়ে যেতেন। এরপর কাপড়-চোপড়সহ নানা উপহার দিয়ে তাদের মুখে হাসি ফোটাতেন।১৯৭২ সালের এক সকালে বঙ্গবন্ধু হাঁটতে বের হয়েছেন, হঠাৎ তিনি দেখলেন, একটি ছোট ছেলে বইয়ের ব্যাগ কাঁধে ঝুলিয়ে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে হাঁটছে। কাছে ডাকার পর ছেলেটি জানায়, তার পা ব্যথা করছে বলে খুঁড়িয়ে হাঁটছে। তখন বঙ্গবন্ধু নিজে ছেলেটির জুতা খুলে দেখেন, জুতার মধ্যে একটি পেরেকের সুঁচালো মাথা বের হয়ে আছে, যার খোঁচায় ছেলেটির পা দিয়ে রক্ত বের হচ্ছে। বঙ্গবন্ধু তখনই চিকিৎসার জন্য তাঁর দেহরক্ষী পুলিশকে নির্দেশ দিলেন, তার হাতে কিছু টাকাও দিলেন। আর পরম মমতায় ছেলেটিকে কোলে নিয়ে আদর করেন। ছোটবেলা থেকেই বঙ্গবন্ধু ছিলেন ভীষণ দয়ালু। কোনো ছেলে ভীষণ গরিব হলে, টাকার অভাবে ছাতা কিনতে না পারলে, রোদ-বৃষ্টিতে কষ্ট পেলে তিনি তাঁর ছাতাটা দিয়ে দিতেন। এছাড়া টাকার অভাবে কোনো ছেলে বইপত্র কিনতে না পারলে নিজের বইপত্র দিয়ে দিতেন। এমনকি একদিন এক ছেলেকে ছেঁড়া কাপড় পরে থাকতে দেখে নিজের পরনের কাপড় খুলে দিয়েছিলেন তিনি। এমন অসংখ্য ঘটনা রয়েছে তাঁর জীবনে। যার একাধিক নিদর্শন তিনি রেখেছেন বিভিন্ন অনুষ্ঠানে, বিভিন্ন কার্যক্রমে। বঙ্গবন্ধুর লিখা অসমাপ্ত আত্মজীবনী,কারাগারের রোজনামচা এবং বাংলাদেশ সৃষ্টির ইতিহাস পড়লে এসব তথ্য জানা যায়। বঙ্গবন্ধু এমন একজন ব্যক্তি ছিলেন যাকে সবাই চিনতো এমন কি বাংলাদেশ নাম জানার আগেই অনেকেই বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানছেন চিনছেন। যতদিন বাংলা ও বাঙালির অস্তিত্ব থাকবে ততদিন তিনি বাংলার মানুষের হৃদয় জুড়ে থাকবেন।

আরও পড়ুনঃ  বঙ্গবন্ধু পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতাকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছিলেন: উপাচার্য

সর্বশেষ - জাতীয়

নির্বাচিত সংবাদ

ভাষা সৈনিক আব্দুর রৌফ চৌধুরীর সমাধিতে গণতান্ত্রিক শিক্ষক পরিষদের শ্রদ্ধা নিবেদন

শরীয়তপুরে চালু হচ্ছে বহুল কাঙ্খিত “ভাসমান খান রেস্তোরাঁ”

অনুপ্রেরণার বাতিঘর ছিলেন বঙ্গবন্ধু

অনুপ্রেরণার বাতিঘর ছিলেন বঙ্গবন্ধু

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে হাবিপ্রবি ‘গণতান্ত্রিক শিক্ষক পরিষদের বৃক্ষরোপণ

মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ ফিলস্তিনের

হাবিপ্রবিতে ‘বি’ ইউনিটের গুচ্ছভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন: সি ইউনিটের পরীক্ষা ১ নভেম্বর 

গাজার শরণার্থী শিবিরে মধ্যরাতে ইসরাইলের বিমান হামলা, নিহত ৩০

পাকিস্তান আফগানিস্তান ম্যাচ আজ, জয়ের স্বপ্ন দেখছেন রশিদরা

হাবিপ্রবিতে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় উপস্থিতি ৯৫ শতাংশের বেশি

মাছের পুকুরে চুরি ঠেকাবে SAU স্মার্ট সিকিউরিটি গার্ড