ঢাকাসোমবার , ১০ মে ২০২১
  1. আনন্দধারা
  2. আন্তর্জাতিক
  3. ইসলাম ও জীবন
  4. কৃষি ও অর্থনীতি
  5. ক্যাম্পাস
  6. খুলনা
  7. খেলাধুলা
  8. গল্প ও কবিতা
  9. গুরুত্বপূর্ণ ওয়েব লিংক
  10. চট্রগ্রাম
  11. চাকুরী বার্তা
  12. জনমত
  13. জাতীয়
  14. ঢাকা
  15. পরিবেশ ও বিজ্ঞান

জন্মদিনে সবুজ বন্ধুদের ভালোবাসায় সিক্ত আলমগীর কবির

পরিবেশবাদী যুব সংগঠণ গ্রীন ভয়েসের প্রধান সমন্বয়ক ও বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পরিবেশ বন্ধু আলমগীর কবিরের  আজ  জন্মদিন। ১৯৭৭ সালের  আজকের এই দিনে নওগাঁ জেলার ধামইরহাট আগ্রাদ্বিগুণ গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। পিতা মৃত মজিবর রহমান, মাতা জাহানারা বেগম। পাঁচ ভাই বোনের মধ্যে চুতুর্থ।

তাঁর ৪৪তম জন্মদিনে গ্রীন ভয়েসের সবুজ বন্ধুদের ভালোবাসায় সিক্ত হয়েছেন তিনি। করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে জনস্মাগমে নিষেধাজ্ঞা থাকায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন গ্রীন ভয়েসের সবুজ বন্ধু ও শুভাকাঙ্খীরা।

আলমগীর কবির এমনই একজন মানুষ যিনি মানুষের বিপদে ছুটে যাওয়া, অন্যর সমস্যাকে নিজের কাধেঁ নিয়ে তা সমাধান করার এক অসাধারণ গুনাবলী সম্পন্ন ব্যক্তিত্ব।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্র্যাজুয়েট শেষ করে কাজ করছেন একটি বিদেশে গবেষণা সংস্থায়। পাশাপাশি তরুণ সমাজ পরিবেশ সচেতন ও আলোকিত মানুষ করার প্রত্যয় নিয়ে যুবরাই লড়বে সবুজ পৃথিবী গড়বে স্লোগানে গঠণ করেছেন গ্রীন ভয়েস নামক পরিবেশ বাদী যুব সংগঠন।

আলমগীর কবির-কে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে রংপুর বিভাগীয় সমন্বয়ক মোনছেফা তৃপ্তি ফেসবুকে লিখেছেন, পৃথিবীতে খুব কম মানুষ যাদের যত কাছে আসা যায় ততই সুগন্ধি আসে । পরিবেশ ও মানুষ  প্রেমী একজন মানুষ যার সবটুকু মিলে আছে গাছ, নদী, বায়ু, মাটি, পানি, হাসি, গান, সুর, ভালবাসা, সহমর্মিতা আর স্বপ্ন। স্বপ্ন দেখার এক অদম্য শক্তি  নিয়ে তিনি প্রতিটি ধূলিকণাতে সম্ভাবনা খুঁজে নেন, অনেক হতাশাতে তিনি প্রাণের সঞ্চার ঘটান! সত্য, সহজ, ন্যায়, সবুজ আর তারুণ্যের প্রতীক শ্রদ্ধেয় Alamgir ভাই,  জন্মদিনের শুভেচ্ছা নিন। সুস্থ থাকুন, ভালো থাকুন আর স্বপ্ন ছড়িয়ে যান দেশ হতে দেশান্তরে, প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে.।

গ্রীন ভয়েস বেরোবি শাখার সভাপতি সোহানুর রহমান সোহান লিখেছেন, শুভ জন্মদিন প্রিয় আলমগীর কবির ভাইয়া।  সম্পর্কটি সাংগঠনিক কিন্তু সরল আচরণের বিমুগ্ধতা আর প্রাণস্পর্শী ব্যক্তিত্বতায় ভাই আমাদের কে জয় করে নিয়েছেন খুব স্বল্প সময়ের মধ্যেই।সম্পর্ক এখন পারিবারিক বন্ধনে আবদ্ধ।

আরও পড়ুনঃ  কালোব্যাজ ধারনের মধ্যদিয়ে হাবিপ্রবিতে মাসব্যাপী শোকাবহ আগস্ট পালনের উদ্যোগ

আজ আপনার প্রচার বিমুখতার ঊর্ধে গিয়ে আপনাকে খুবই রোমন্থন করতে ইচ্ছে করছে বলেই দুলাইন রেখে দিলাম স্মৃতিপটে। একটি শঙ্কাও রয়েছে ভাই যে সময়ের মধ্যে দিয়ে আমরা অতিবাহিত করছি তাতে কারও সম্পর্কে ভালো কিছু বলাটা হেটার্সরা তেলবাজী বলে সম্মোধন করে।সেটি তাদের অভিধানেই থাকুক, আমি ৪টি চিরন্তন সত্য কথা বলতে উদ্যত হয়েছি।নিজের শত কর্মব্যস্ততার মধ্য দিয়েও কি চমৎকার করে কমিউনিকেশন টি রক্ষা করে চলেন ভাইয়া। তাঁর কাছে যোগাযোগ রক্ষায় সাংগঠনিক কোনো প্রোটোকল নেই, নেই সাংগঠনিক চেইন অব কমান্ড। ইউনিটের সভাপতি থেকে শুরু করে সদস্য পর্যন্ত যখন যাকে মনে পড়ছে খোঁজ নিচ্ছেন, মুখপঞ্জিতে নিয়মিত তাদেরকে সাড়া দিয়ে যাচ্ছেন কমেন্ট বক্সে।যখন যিনিই তাকে নক দিচ্ছেন সমগুরুত্বের সাথে সাড়া দিচ্ছেন সব্বাইকে। ফলে টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়া, টোয়েন্টিফোর/সেভেন, যদি কেউ একবার ভাবেন যে আলমগীর ভাইকে নক দেবেন তাহলে আর দ্বিতীয়বার ভাবেন না যে এখন নক দেবো কি না!

একটা ব্যাপারে আমাদের বেরোবি চ্যাপ্টারে আলমগীর ভাইকে মাঝে মাঝেই আধ্যাত্মিক মনে হয় আর এ ব্যাপারটি নিয়ে আমরা নিয়মিতই কথা বলি নিজেদের মধ্যে, সেটি হলো আলমগীর ভাই আজ পর্যন্ত কক্ষোনো কোনো প্রস্তাবে ‘না’/’হবে না’ এই শব্দটি উচ্চারণ করেন নি একবারও। একান্ত ব্যক্তিগত থেকে শুরু করে সাংগঠনিক- যখন যে উদ্যোগ, আর্থিক সমর্থন, কিংবা পরিকল্পনার কথা আমরা যে কেউই শেয়ার করি না কেন ভাইয়ের সাথে, এক বাক্যে বলে ওঠেন ‘করেন’/’করে ফেলেন’।

সংগঠনের যে কেউই একেবারেই তুচ্ছ কিছু করুক না কেন আলমগীর ভাইয়ের সমর্থন সমেত বাহ্ বাহ যে তিনি পাবেন এটি চিরন্তন। আলমগীর ভাইয়ের কাছ থেকে এই প্রাণোচ্ছ্বল সমর্থন একজন কর্মীকে যে অনুপ্রেরণার কোন মঞ্চে পৌঁছিয়ে দেয় সেটি এক অদৃশ্য অভিবাদন। যে কোনো ইভেন্টে আলমগীর ভাই শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পুরো কর্মভার ছেড়ে দেন সংগঠকদের নিকট। কাজেই সংগঠকরা স্বাতন্ত্রতার মধ্য দিয়ে নিজেদেরকে প্রমাণ করেন সেই কাজের ভেতরে। যদিও বা কোনো গুরুত্বপূর্ণ পরিমার্জন থাকে তাহলে এক চমৎকার-বিনয়ী সুরে বলেন, “সুযোগ থাকলে এইটাকে ঐটা করে নিয়েন”আজ পর্যন্ত কারো উপর কক্ষোনো কিঞ্চিত রেগে কথা বলতে দেখি নি আলমগীর ভাইকে। যদিও বা কোনো ত্রুটি দেখতেন গাল ফুলানো হাসি হেসে নান্দনিকতার সাথে সেটিকে ‘সামনে ঠিক হয়ে যাবে’ বলে উড়িয়ে দিতেন। মুখের মিষ্টি হাসি টি ভাইয়ের ব্যক্তিত্বের সাথে বড়ই মানানসই।যোগাযোগ রক্ষা, সব সময়ের সমর্থন, উদ্যোমতা জাগানো, কাজের স্বাধীনতা প্রদান, ক্রোধহীন হাসিমুখ আলমগীর ভাইয়ের হাজারো গুন থেকে এই ৫টি গুনকে খুব খুব খুব খুবই ভালো লাগে আমার।জীবনের ২৩টি বছর অতিক্রম করেও আর দ্বিতীয় কাউকে আলমগীর কবির ভাইয়ের নিকটস্থ সংগঠকের আসনে দেখি নি এ পর্যন্ত। আব্দুল্লাহ আবু সায়ীদ স্যারের “সংগঠন ও বাঙালি” গ্রন্থে উল্লেখিত আদর্শ নেতৃত্বের সকল স্তরে আমি কেবল এক আলমগীর ভাইকেই আবিষ্কার করতে পারি। ৪৪ তম জন্মদিনের অফুরন্ত, অনিঃশেষ শুভেচ্ছা সমেত ভালোবাসা গ্রহন করুন ভাইয়া।

আরও পড়ুনঃ  বঙ্গকন্যা শেখ হাসিনা

গ্রীন ভয়েস নিয়ে আলমগীর কবির বলেন, যুব সমাজকে একটা প্লাটফর্মে নিয়ে আসার চিন্তা থেকে আমার গ্রীন ভয়েস এর যাত্রা। স্কুল কলেজের ছেলে মেয়েদের পরিবেশ সচেতন, পরিবেশ বিপর্যয় এবং নদী দখল-দুষণকারীদের বিরুদ্ধে সোচ্চার করাই গ্রীন ভয়েস এর লক্ষ্য। স্কুল কলেজ গুলোতে পরিবেশ ক্লাব, গ্রীন ক্লাব সৃষ্টি করে আমরা পরিবেশ নিয়ে রচনা প্রতিযোগীতা ও কুইজ প্রতিযোগীতার আয়োজন করি যাতে পরিবেশ এর উপকারীতা সম্পর্কে জানতে পারে। আমাদের চারপাশের খাল,খেলার,,নদী দখল প্রতি মুহূর্তে হচ্ছে। এগুলো যাতে দখল না হয় তার জন্য আমরা জন সচেতনতা মূলক কাজ করে থাকি।

মানুষের অনেক স্বপ্ন থাকে, আমার স্বপ্ন একটু ভিন্ন। চারপাশের মানুষের অপ্রাপ্তি গুলো যদি ঘুছাতে পারতাম, মানুষের জন্য শিক্ষা, স্বাস্থ্য পরিবেশ, বাসস্থান, সহ যাবতীয় মৌলিক বিষয় গুলো যদি নূন্যতম মেটানো যেত তবে তৃপ্তি পেতাম। দেশের যে প্রান্তে অধিকার আদায়ের আন্দোলন, যেখানেই বিপদগ্রস্থ মানুষ, সেখানেই নিজের সামর্থ নিয়ে হওয়া আমার লক্ষ্য। আমি স্বপ্ন দেখি, একদিন দেশের মানুষের মৌলিক চাহিদা গুলো পরিপূর্ন ভাবে পূরন হবে মানুষ মানুষের জন্য কাজ করবে এটাই আমার বিশ্বাস।

সর্বশেষ - জাতীয়

নির্বাচিত সংবাদ

প্রশাসনের বাড়ি ফিরে যাওয়ার অনুরোধ: বাস দাবি শিক্ষার্থীদের

বাবা-মায়ের সাথে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানালেন কুড়িকৃবি উপাচার্য

গবেষণায় চৌর্যবৃত্তি ঠেকাতে টার্নিটিনের মতো সফটওয়্যার তৈরির আহ্বান

হাবিপ্রবি গ্রীন ভয়েস

হাবিপ্রবি গ্রীন ভয়েসের উদ্যোগে জীবন দক্ষতা উন্নয়ন বিষয়ক কর্মশালা

কৃষি গবেষণা কেন্দ্রে বারি সরিষা-১৮ জাতের মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব কুড়িগ্রামের জিয়াউল হাসান

কুড়িগ্রামে আন্তর্জাতিক নদী দিবসে নদী রক্ষায় গ্রীন ভয়েসের মানববন্ধন

RAISE প্রকল্পের অগ্রগতি বিষয়ক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

টিএমটি ইকবাল

না ফেরার দেশে চলে গেলেন সবুজ হাবিপ্রবির স্বপ্নদ্রষ্টা অধ্যাপক টিএমটি ইকবাল

জাপানের হোক্কাইডো ইউনিভার্সিটি এম্বাসেডর হলেন অধ্যাপক ড. তোফাজ্জল